সহজ কথায়, ভাব/ ভাবনা প্রকাশের যে কোন মাধ্যম ই ভাষা – হতে পারে মৌখিক, আক্ষরিক অথবা ইঙ্গিত। প্রাণীজগতের সবার সব মিলিয়ে কত ভাষা আছে বলতে পারছি না তবে শুধু মানুষের ই ভাষার সংখা প্রায় ৬০০০ এর উপরে। সেই সাথে গত শতাব্দী থেকে যোগ হয়েছে যন্ত্রের ভাষা- যা দিয়ে আমরা মেশিনের সাথে কথা বলি, আদেশ নির্দেশ দেই। এর ই নাম “প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ”। এই ভাষার সংখা ও কিন্তু কম নয় কিন্তু হাতে গোনা কিছু জনপ্রিয় “প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ” কতৃত্ব করে চলেছে।

সম্প্রতি Kingston University ‘র ফরেনসিক সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং প্রফেসর Les Hatton এর ৪৫ মিলিয়ন লাইনের কোড এর এক জরিপে দেখা যায় C, C++ এবং Java তে বেশি লেখা হয়েছিল। এছাড়া Fortran, Ada, Tcl এবং অন্যান্য ভাষার দেখা পাওয়া যায়।

কিন্তু আজকের কম্পিউটিং এর সাথে দশক পুরানো হাতে গোনা কয়েকটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যথেষ্ট নয়। সয়ং C++ এর স্রস্টা, প্রফেসর  Bjarne Stroustrup ও তাই মনে করেন। তিনি বলেন যে জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ গুলি অনেক ক্ষেত্রে সহায়ক হলে ও কিছু ফাংশন এর জন্য এগুলি যুগোপযোগী নয়। এসব কারণে চলমান ইনডাস্ট্রি’র চাহিদা পূরণ করতে গিয়ে কোডিং হয়ে পড়ে জটিল, ব্যয় ও সময় সাপেক্ষ। প্রযুক্তি যখন মাল্টি- কোর প্রোসেসিং, উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন- ক্লাউড কম্পিউটিং এর দিকে এগিয়ে চলেছে তখন কিছু নতুন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ নিয়ে আসতে পারে সময়োপযোগী ও গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তণ যা কিনা আগামীর সমস্যার সহজ সমাধান দিতে সক্ষম।

সম্ভাবনাময় কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হল:

** Google’s Dart for Web programming: https://code.google.com/p/dart/

** Crey’s Chapel for supercomputing: http://chapel.cray.com

** Haxe: A multiplatform language: http://haxe.org

** Microsoft’s F #: http://research.microsoft.com/en-us/um/cambridge/projects/fsharp

** Red Hat’s Ceylon: http://ceylon-lang.org

** IBM’s X10 for parallel processing: http://x10-lang.org

{Partially translated from Sixto  Ortiz  Jr.’s “Computing Trends Lead to New Programming Languages” }


Leave a Reply

Your email address will not be published.